দেশ বাংলা

ঘাটাইলের জনবান্ধব ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার

শহিদুল ইসলাম সোহেলঃ-   ঘাটাইলের জনবান্ধব ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার।জনগণের অভিযোগ শুনতে সময় দেন সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত।অভিযোগ নিষ্পত্তি করে নিজহাতে মিষ্টিমুখ করান বাদী বিবাদীকে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমদাদুল হক সরকার।জনগণের প্রতি ভালোবাসা এবং কর্তব্যপরায়ণতার জন্য একজন জনবান্ধন চেয়ারম্যান হিসেবে যার সুনাম সর্বত্র।নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তিনি রসুলপুর কে একটি সমৃদ্ধ ইউনিয়ন হিসাবে গড়ার লক্ষ্যে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই তিনি নিজস্ব অর্থায়নে গড়ে তুলেছেন মসজিদ,উচ্চবিদ্যালয় সহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠান।রাস্তাঘাট মেরামত,ব্রিজ কালভার্ট নির্মাণ সহ সকল কাজ নিজে তদারকি করেন যাতে কোন অনিয়ম না হয়।পরিষদের জন্য রয়েছে আলাদা একাউন্ট।সকল ফান্ডের টাকা জমা হয় এই একাউন্টে।নিজে একটাকাও খরচ না করে,সব ইউনিয়নের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ব্যয় করেন। নিয়মিত ইউনিয়ন পরিষদে সময় দেন।সকলের অভিযোগ আবদার শুনতে তিনি বেশির ভাগ সয়ই সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত সময় দেন।পরিষদে কারো কোন অভিযোগ থাকলে তার বাদী বিবাদীকে বুঝিয়ে সুন্দর ভাবে মিমাংসা করেন এবং নিজ হাতে উভয়কেই মিষ্টিমুখ করান। এভাবে দ্বায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কোন প্রতিকূলতায় পরতে হয় কিনা জানতে চাইলে জনাব এমদাদুল হক সরকার বলেন,ভালো মানুষেরই শত্রু বেশি।বাংলাদেশের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে নিয়ে কতো ষড়যন্ত্র হয়েছে।জীবনের এগারটি মূল্যবান বছর তিনি কারাগারে কাটিয়েছেন এই ষড়যন্ত্রের জন্যই।এমনকি ষড়যন্ত্র করে তাকে সপরিবারে হত্যা করা হয়।মৃত্যুর ভয় কি পেরেছে তাকে থামাতে?আমি মনেপ্রাণে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন সৈনিক।কোনও ষড়যন্ত্রই আমাকে থামাতে পারবে না।আজীবন আমার এলাকার মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবো।স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির কাছে কখনো মাথানত করবো না।বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীন হয়েছে বাংলাদেশ।তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই সকল দূর্নীতিবাজ,অনুপ্রবেশকারী এবং হাইব্রিডদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছেন।অপরাধ করে কেউ পার পাবেনা সে যেই হোক।ইনশাআল্লাহ তার নেতৃত্বেই সকল অপশক্তির বিনাশ হবে।তার হাতে ধরেই উন্নয়নের মহাসড়কে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close