বাংলাদেশ

প্রয়োজনে ঢাকার মতো চট্টগ্রামেও অভিযান চালানো হবে: তথ্যমন্ত্রী

অনিয়ম ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রয়োজনে ঢাকার মতো চট্টগ্রামেও অভিযান চালানো হবে।

শুক্রবার বিকেলে থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম (টিআইসি) মিলনায়তনে আন্তঃস্কুল জাতীয় টেলিভিশন বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র দেশের ৪৮টি বিদ্যালয়ের বিতর্ক দল নিয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখন মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। ঢাকা শহরে অভিযান চলছে। যেখানে অন্যায় অনিয়ম সেখানেই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। কে কোন দলের কোন মতের সেটা দেখা হচ্ছে না। যারা অনিয়ম করে তারা দেশকে পিছিয়ে দেয়। সুতরাং সমস্ত অনিয়ম ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রয়োজনে ঢাকার মতো চট্টগ্রাম শহরেও অভিযান চালানো হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যুক্তিভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থায় বিশ্বাস করি। যুক্তি এবং ন্যায়ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হলে যুক্তি-তর্কের ভিত্তিতে সমাজে ন্যায় প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সমাজকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে বিতর্ক ছাড়া সেটি সম্ভব নয়। স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সঠিকভাবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সহায়ক হয়।’

শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মধ্যে মূল্যবোধ, দেশাত্মবোধ, মমত্ববোধকে জাগ্রত করতে হবে। ছোটবেলায় এসব মনের গভীরে প্রোথিত করতে হবে। তাহলে ভবিষ্যতে চলার পথে যদি তারা ন্যায় থেকে বিচ্যুতিও হয় তখন এই মূল্যবোধ তাদের বাধা দেবে।’

অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমার বয়স যখন সাড়ে ৭ বছর, তখন একদিন আমার বাবা বাসায় এসে আমাকে বললেন, একটা ওয়াদা কর। আমি বললাম, বাবা বলুন। তিনি বললেন, ওয়াদা কর জীবনে কোনদিন সিগারেট খাবে না। আমি কিন্তু জীবনে একটি সিগারেটও খাইনি। আমার বন্ধুরা অনেক চেষ্টা করেছে, সিগারেটে একটি টান দেওয়ানোর জন্য। বলে, শুধু এক টান দে। আমি কিন্তু দেইনি। একটা দিলে দ্বিতীয়টাও দিতে হতো। বাবার কাছে যে প্রতিজ্ঞা করেছিলাম সেটা আমাকে বারবার যখনই বন্ধুরা আমাকে প্ররোচিত করার চেষ্টা করতো, তখনই বাবার কথা মনে পড়তো। আরো কয়েকটি ওয়াদা বাবা করিয়েছিলেন। সেগুলোও আমি পালন করেছি।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তোমরাও আজকে মনে মনে প্রতিজ্ঞা করবে, কখনো সিগারেট খাবে না, মাদকের স্পর্শে আসবে না। তোমাদেরকে আরও একটি অনুরোধ জানাবো– তোমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রতি আসক্ত হবে না। শুধু যে মাদকে আসক্তি তা নয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সারাক্ষণ নিবিষ্ট হয়ে থাকা, এটাও একটি আসক্তি।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এস এম হারুনুর রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য ওয়াসিকা আয়েশা খাঁন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আজহারুল হক, অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রচার) নুরুল করিম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্রের জিএম নিতাই কুমার ভট্টাচার্য্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close