খেলাধুলা

রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস টেনিস টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার: খোরশেদ আলম

বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস্ এর টেনিস টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম টেনিস কমপ্লেক্সে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বেলুন উড়িয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস্ এর আয়োজন করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়ামোদী প্রধানমন্ত্রী। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ভালো ফুটবল খেলতেন, বঙ্গবন্ধুপুত্র শেখ কামাল ভালো খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন। বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার দেশের ক্রীড়াঙ্গনে উন্নয়নে অব্যাহতভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশে যারা খেলছেন, তাদের সুযোগ-সুবিধার কোন অভাব হবে না।

মেয়র আরো বলেন, আমরা এক সময় মনে করতাম শুধু সরকারি উর্ধ্বতন কর্মকর্তা অথবা ধনী ব্যক্তিরাই টেনিস খেলেন। তবে এখন টেনিস সাধারণ মানুষের মধ্যেও চলে এসেছে। অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের টেনিস খেলাতে নিয়ে এসেছেন। টেনিসের প্রতি আগ্রহ দেখে আমি আশাবাদী আগামীতে টেনিসে বাংলাদেশের ভালো একটা অবস্থান তৈরি হবে। আমি এই টুর্নামেন্টের সাফল্য কামনা করছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. মোঃ হুমায়ুন কবীর, রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি মোঃ আব্দুল বাতেন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক, জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল, বিটিএফের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী দ্বীন।

সভাপতিত্ব করেন এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম টেনিস কমপ্লেক্সের সভাপতি প্রফেসর ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার তাপু। স্বাগত বক্তব্য দেন এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম টেনিস কমপ্লেক্সের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হুদা দুলু।

খেলায় দেশের ২৫ জন মেয়ে খেলোয়াড় সহ মোট ১২৪জন খেলোয়াড় অংশ নিয়েছে। আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত খেলা চলবে।

এর আগে, খেলোয়াড়দের করোনা টেস্ট করার পর নেগেটিভ রেজাল্ট পাওয়া খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে । শুধু তাই নয়, করোনায় টেনিস কোর্টের বল বয় থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরও খেলোয়াড়দের মতো একই নিয়ম অনুসারণ করা হয়েছে। টুর্নামেন্ট কমিটি থেকে ৬ সদস্য বিশিষ্ট একটি চিকিৎসা টিম সার্বক্ষনিকভাবে নিয়োজিত আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close